‘রাজনীতি’ কেন আজ বন্ধুত্বের মাঝে অন্তরায়…?

 

আসিফ আকবর ।

আসিফ আকবর : সেই কেজি থেকে ভার্সিটি লেভেল পর্যন্ত হাজারো বন্ধু পেয়েছি। অনেকের সাথেই যোগাযোগ নাই, আবার অনেকের সাথে আছে। ছোট বাচ্চা থেকে বাচ্চার বাপ হয়েছি, মেয়ে ক্লাসমেটরা মা হয়েছে। কেউ হয়তো বিয়ে করেনি, কেউ মারা গেছে। মাঝে মাঝে রি-ইউনিয়ন হয়, আমরা বন্ধুরা মিলিত হই বছর বছর। কুমিল্লা জিলা স্কুল ৮৯ আর ভিক্টোরিয়া কলেজ ৯১ চিরঞ্জীব ব্যাচ আমরা। হোক গাধাবী কিংবা মেধাবী, আমাদের ব্যাচের বেশীর ভাগ বন্ধুরাই জ্বলজ্বলে ক্যারিয়ার গড়ে তুলে ভাল আছে।
আমরা কেজি থেকে রাজনৈতিক মতাদর্শ নিয়ে বড় হইনি। ইন্টারে ছাত্র রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ে বন্ধুরা বিভিন্ন মতাদর্শের নেতা কর্মী সমর্থক হয়েছে। সে সময়ের উত্তেজনা বলি অথবা ম্যাচিউরিটি শর্টেজ বলি, আমরা রাজনীতিতে অনেক ভুল করেছি।

গোলাগুলি দলাদলিতে বন্ধুত্বের সম্পর্কে চিড় ধরেছে।বিভেদ সৃষ্টি হয়েছে তবে সেটা পরিমানে খুবই কম। আমরা এখনো একত্রিত হলে রাজনৈতিক চরিত্র থেকে সামাজিক সম্পর্কের অসীমে চলে যাই। রাজনীতির অঙ্গনে বিভিন্ন দলে বন্ধুরা ভাল খারাপ অবস্থান মিলিয়ে আছে। আমরা তো কেজি থেকে রাজনৈতিক না, তাহলে রাজনীতির কারনে এতদিন পর এই বয়সে এসে কেন আপন ভাইয়ের মত বন্ধুরা দুরে সরে যাবে !!! প্রকাশ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ হবে !! এক পার্টির বন্ধু আরেক পার্টির বন্ধুর সাথে মিশলে পাছে লোকে কিছু বলবে… আমি এসব গুরুত্ব দেইনা।

আই হেট পলিটিক্স মানষিকতার বন্ধুরা পলিটিশিয়ান বন্ধুদের এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে। বিপদে পড়লে তদবিরের জন্য মাঝে মাঝে পুরনো বন্ধুকে স্মরন করে। পলিটিশিয়ান বন্ধুরা এগিয়ে আসে শর্তহীন ভাবে। রাজনৈতিক পরিচয়টাই সব সম্পর্কের আসল চাবিকাঠি হওয়া উচিত নয়। আমার ভাই বন্ধু অন্য দলের মন্ত্রী এমপি, তার সাথে ছবি তুলে ফেসবুকে দিলে দলকানা দলদাস দলগাধাদের মধ্যে হায় হায় রব উঠে যাবে। সেনসিটিভ জব করা বন্ধুদের কাছ থেকে ইচ্ছে করে দুরে থাকি যেন তার ক্যারিয়ারে দলকানাদের উপদ্রব না থাকে। এখন তো ভাইয়ে ভাইয়ে সম্পর্কও তথাকথিত রাজনৈতিক মানসিকতায় চলে।

আমরাতো কেজি থেকে রাজনীতি শিখে বন্ধু হইনি! তাহলে রাজনীতি কেন বন্ধুত্বের মাঝখানে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াবে ? বাংলাদেশের শীর্ষ রাজনীতিকদের আত্মীয়স্বজন বিভিন্ন দলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ক্ষমতার মৌজে আছেন সহি সালামতে। আমরা হয়ে গেছি রাজনৈতিক উলুখাগড়া। আমাদের বন্ধুত্বের সম্পর্কের ক্ষেত্রে রাজনীতিই প্রধান নিয়ামক- এই থিওরি আমি মানিনা। আমার কাছে ছোটবেলার বন্ধুদের গুরুত্ব অনেক বেশী। যদি শিক্ষিত রাজনীতিক হই তাহলে পরস্পরের মতাদর্শকে সম্মান করেই বাকী জীবন কাটাবো। বন্ধুত্বের জয় হউক… হাইব্রীড রাজনৈতিক গাধার পাল জল ঘোলা করে তিয়াস মিটাক…ভালবাসা অবিরাম…

লেখক: বিশিষ্ট কন্ঠশিল্পী।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/জেআইএস

আরও পড়ুন...