ভারতে ১২২ বছরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড

বিডিপ্রেস এজেন্সি ডেস্ক : ভয়াবহ দাবদাহে বিপর্যন্ত ভারত। তীব্র গরমে পুড়ছে বিভিন্ন রাজ্য। এপ্রিল মাসে উত্তর-পশ্চিম এবং মধ্য ভারতে ১২২ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী স্বাভাবিক সর্বোচ্চ তাপমাত্রার চেয়ে গড়ে ১.৮৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল ২০২২ সালের মার্চ মাসের গড় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। এই মাসের গড় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিকের চেয়ে ১.৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি।

আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে মার্চে বৃষ্টির ঘাটতি প্রায় ৭১ শতাংশ। ১১৪ বছরের মধ্যে চেয়ে কম বৃষ্টির রেকর্ড রয়েছে মাত্র দুইবার। সাধারণ ভাবে মার্চ মাসে দেশে গড়ে ৩০.৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। কিন্তু এ বার মার্চে ভারতে বৃষ্টি হয়েছে মাত্র ৮.৯ মিলিমিটার। এর আগে ১৯০৮ সালের মার্চে ভারতে বৃষ্টি হয়েছিল ৮.৭ মিলিমিটার। ১৯০৯ সালের মার্চে বৃষ্টি হয়েছিল ৭.২ মিলিমিটার।

এছাড়াও গত দেড় মাসে দিল্লিতে স্বাভাবিকের চেয়ে ৪ গুণ বেশি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

এর আগে জানুয়ারি মাসের শুরুতে আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গিয়েছিল, ১৯০১ সাল থেকে গত ১২০ বছরের ইতিহাসে ২০২১ সালটি ছিল ভারতে পঞ্চম উষ্ণতম বছর। মার্চ মাসে আবহাওয়ার গতিপ্রকৃতি দেখে আবহাওয়াবিদরা ধারণা করছেন, ভারত ২০২২ সালে উষ্ণতার নতুন রেকর্ড গড়তে পারে। তবে শুধু উষ্ণতা বৃদ্ধি নয়, চলতি বছরের শুরুর দিকে ভারতে উদ্বেগজনক ভাবে কম বৃষ্টিপাত হয়েছে।

এদিকে, মে মাসেও ভারতের কয়েকটি রাজ্যে অস্বাভাবিক তাপমাত্রা অব্যাহত থাকবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ। গরমে নাজেহাল অবস্থা পাঞ্জাব, রাজস্থান, জম্মু- কাশ্মীরের মানুষের। প্রয়োজন ছাড়া সেখানে কাউকে বাড়ির বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এদিকে, তীব্র দাবদাহের মধ্যে বাড়তি ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিদ্যুৎ বিভ্রাট। ভারতের তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে মজুত করা কয়লা পরিমাণ উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে যাওয়ায় দেখা দিয়েছে তীব্র জ্বালানি সঙ্কট।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/টিএ

আরও পড়ুন...