বাস্তবায়নের পথে প্রধানমন্ত্রীর গৃহদানের অঙ্গীকার

জিয়াউদ্দিন লিটন,বিডিপ্রেস এজেন্সি,বগুড়া : বগুড়ায় মুজিববর্ষের উপহার ১৭০২ কি ঘর পাচ্ছেন সমপরিমাণ ভূমিহীন পরিবার। মুজিববর্ষে ১ম পর্যায়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে দূর্যোগ সহনীয় ঘর পাচ্ছেন দেশের ৬৬,৬০০ টি ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার। এ এক অনিবার্য বাস্তবতা বাস্তবায়িত হতে চলেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন পূরণের অংগীকার । সমগ্র দেশের ন্যায় বগুড়া জেলাতেও ১ম পর্যায়ে ১৭০২ টি অসহায় পরিবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেতে চলেছেন। আগামী ২৩ জানুয়ারি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশব্যাপী গৃহহীনদের মাঝে গৃহ বিতরণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপরই উপকারভোগীদের হাতে তুলে দেয়া হবে জমির কবুলিয়ত দলিল, নামজারি খতিয়ানসহ সার্টিফিকেট।

ভূমি ও গৃহহীন মানুষের আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করতে মুজিববর্ষে বগুড়ার এক হাজার ৭০২ পরিবার পাচ্ছে জমিসহ বাড়ি। ইতোমধ্যে জেলার ১২ উপজেলা ও ৫০টি ব্যারাকে এক হাজার ৭০২টি ঘর নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার বাছাই করে ঘর বরাদ্দের সব প্রস্তুতি শেষ করেছে বগুড়া জেলা প্রশাসন। আগামী ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসক মোঃ জিয়াউল হক।

জেলা প্রশাসক জানান, আশ্রায়ণ প্রকল্পের আওতায় জেলার ১২টি উপজেলা এবং ৫০টি ব্যারাকসহ মোট এক হাজার ৭০২টি গৃহ প্রদান করা হবে। এদের মধ্যে সদরে ২৫০টি, শাজাহানপুরে ১৫টি, শেরপুরে ১৬৩টি, ধুনটে ১০১টি, সারিয়াকান্দিতে ১০৭টি, সোনাতলায় ১২৫টি, গাবতলীতে ৪৫টি, শিবগঞ্জে ১৮০টি, আদমদীঘিতে ১০০টি, দুপচাঁচিয়ায় ১৩৩টি, কাহালুতে ৭৭টি এবং নন্দীগ্রামে ১৫৬টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়াও সারিয়াকান্দি উপজেলার কর্ণিবাড়ী ইউনিয়নের শনপঁচা মোল্লাপাড়ায় ১০টি ব্যারাকে ৫০ , নান্দিনার চরে ১৬টি ব্যারাকে ৮০, চন্দনবাইশা ইউনিয়নের বানিয়াপাড়ায় ২৪টি ব্যারাকে ১২০টি পরিবারকে গৃহ প্রদান করা হবে।

তিনি আরও জানান, রাজশাহী বিভাগে বগুড়া জেলায় সবচেয়ে বেশি গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। এই প্রকল্পে জেলা প্রশাসনের ৪জন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নিয়মিত তদারকি করছেন। আগামী ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘর বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। জেলা প্রশাসনে কেন্দ্রীয়ভাবে আয়োজন না থাকলেও ১২টি উপজেলায় স্থানীয় সাংসদ, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং উপকারভোগীরা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন।মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক( রাজস্ব) আব্দুল মালেক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক( শিক্ষা ও আইসিটি) মাসুম আলী বেগ, সহকারী কমিশনার জি এম রাশেদুল ইসলাম ও আশরাফুর রহমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুদুল আলম নয়ন, সাধারণ সম্পাদক আরিফ রেহমান সহ সাংবাদিকেরা উপস্থিত ছিলেন।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/আই




আরও পড়ুন...