তেলের দামের মতো মানুষের আয়ও বাড়ানোর দাবি

বিডিপ্রেস এজেন্সি,ঢাকা : সয়াবিন তেলের দাম ২৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। মানুষের আয়ও সমপরিমাণ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।

সয়াবিন তেলসহ ভোজ্য তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার রাজধানীর পল্টন মোড়ে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ দাবি জানান। সিপিবি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখা এ সমাবেশের আয়োজন করা করে।

সরকারের উদ্দেশে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, তেলের বাড়তি দাম বাতিল করতে হবে। অন্যথায় তেলের দাম যেভাবে বাড়িয়েছেন ২৫ শতাংশ, সেভাবে প্রত্যেকের আয় ২৫ শতাংশ বাড়ানোর ব্যবস্থা করতে হবে। আর তা না হলে ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে জনগণের অধিকারের কাছে নতি স্বীকার করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, তেলের দামের বিষয়ে যদি আপনি বলেন, আমি তো জানতাম না, তাহলে আপনাকে পদত্যাগ করতে হবে। আর তা না হলে ক্রেতাদের সাথে কোনো আলোচনা না করে খালি লুটপাটকারী সিন্ডিকেটের কয়েকজনের সঙ্গে আলোচনা করে যে কুলাঙ্গার মন্ত্রী এ সিদ্ধান্ত দিয়েছে, সেই সিন্ডিকেট ও সেই মন্ত্রীকে এই দেশ থেকে বিতাড়িত করতে হবে। তাদের উপযুক্ত শাস্তি দিতে হবে। ‌

এসময় তিনি শনিবার সারাদেশে কমিউনিস্ট পার্টির পক্ষ থেকে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

জনগণের উদ্দেশে সেলিম বলেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির ইস্যুতে আমরা প্রতিবাদ-হরতাল করেছিলাম। আপনারা সেবার সমর্থন দিয়েছিলেন। সে সময় যদি কোটি কোটি মানুষ রাস্তায় নেমে আসতো, তাহলে আজ শেখ হাসিনার সরকার তেলের দাম বাড়ানোর সাহস পেত না।

সেলিম বলেন, হরতাল আমরা আবার ডাকব। সেই হরতালে শুধু ঘরে বসে সমর্থন করলে হবে না, রাজপথে নেমে আসেন। তারপর আমরা দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির অত্যাচারের হাত থেকে জনগণের স্বার্থকে রক্ষা করতে পারব।

সরকারের মন্ত্রীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, পাবলিকের যে টাকা আপনারা চুরি করে জমা করছেন, সেই টাকা আপনাদের সিন্দুক থেকে আমরা বের করে নিয়ে আসব বিপ্লবের মাধ্যমে, গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে। বিদেশে পাচার করা টাকা আমাদের বাজেটের প্রায় সমান। এটা সরকারের হিসাব। এই টাকা আমাদের টাকা। এই টাকা জনগণের হাতে ফিরিয়ে দিতে হবে।

ঢাকা মহানগরের সভাপতি শামসুজ্জামান হিরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সিপিবির মহানগর নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/টিএ

আরও পড়ুন...