জন্ম নিবন্ধন নিতে এসে ধর্ষণের শিকার পোশাক শ্রমিক

শওকত জামান,বিডিপ্রেস এজেন্সি,জামালপুর : ইউনিয়ন পরিষদে জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে এসে ধর্ষনের শিকার হলো ২০ বছর বয়সি এক পোষাক শ্রমিক।সোমবার (১৮ জানুয়ারি) রাতে অভিযুক্ত ধর্ষক উদ্যোক্তা নাজমুল হক বাবু (২২) কে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হলে জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

নাজমুল হক বাবু উপজেলার নিলক্ষিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম নিলক্ষিয়া গ্রামের আবুল কালাম আজাদের ছেলে।

পোশাক শ্রমিকের দায়ের করা ধর্ষণ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বকশীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু শরিফ জানান, করোনা মহামারীর কারণে লকডাউনের সময় ধর্ষণের শিকার ওই পোশাক শ্রমিক তার চাকরি হারান। দীর্ঘদিন বাড়িতে বেকার থাকার পর তিনি সম্প্রতি ঢাকায় অন্য পোশাক কারখানায় চাকুরির চেষ্টা করেন। এতে তার জন্ম নিবন্ধনের প্রয়োজন পড়ে।

তিনি জন্ম নিবন্ধন সনদ নিতে নিলক্ষিয়া ইউনিয়ন পরিষদে যান। ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা নাজমুল হক বাবু তাকে ১৪ তারিখে জন্মনিবন্ধন দেওয়ার কথা বলে পরিষদে আসতে বলেন। নির্ধারিত তারিখে ওই পোশাক শ্রমিক জন্ম নিবন্ধন নিতে এলে পরিষদের অফিস কক্ষে অন্য ব্যক্তির সহায়তায় তাকে ধর্ষণ করেন উদ্যোক্তা নাজমুল হক বাবু।

বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম জানান, দুজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন ওই পোশাক শ্রমিক। মামলার প্রধান আসামি নাজমুল হক বাবুকে মধ্যরাতে তার নিজবাড়ি থেকে আটক করা হয়েছে। ধর্ষণে সহয়তা করা অপর ব্যক্তিকে আটকের চেষ্টা চলছে।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/টিআই

আরও পড়ুন...