গৃহবধূ হত্যা : ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও জরিমানা

প্রতিকী ছবি।

সৈয়দ শওকত জামান,জামালপুর :  জামালপুরে শাহিদা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে ৩ জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন সিনিয়র দায়রা জজ আদালত। সেই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

সোমবার (২৮ জুন) দুপুরে জামালপুরের সিনিয়র দায়রা জজ আদালতে এই রায় দেন বিচারক মো. জুলফিকার আলী খাঁন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার পূর্ব ভাটিয়ারপাড়া গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে রবিউল কাশেম (৫৯), আমিনুর রহমান (৪৬) ও রবিউল কাশেমের ছেলে নিক্সন (৩৬)।

মামলার রায়ের বিবরণী সূত্রে জানা গেছে, ২০০৩ সালে আবদুস সালামের ছেলে শাহিন মিয়ার সঙ্গে ভেলামারী গ্রামের মো. মজিবর রহমানের মেয়ে শাহিদা আক্তারের বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে দুই সন্তান হবার পর ২০০৭ সালে স্ত্রীকে নিজবাড়িতে রেখে সৌদি আরব যান শাহিন।

সংসারের প্রয়োজনে সৌদি থেকে শাহিন স্ত্রীর নামে টাকা পাঠালে সেই টাকা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে ভাসুর রবিউল কাশেম, আমিনুর রহমান ও ভাসুরপুত্র নিক্সনের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদের ঘটনা ঘটে। চলমান বিবাদের একপর্যায়ে ২০১০ সালের ২০ জানুয়ারি বুধবার সকালে শাহিদাকে মারপিট করে নাক, মুখ ও গলা চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তারা।

মাদারগঞ্জ থানার পুলিশ নিহত শাহিদার লাশ উদ্ধার করে ওইদিনই ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেয়ে শাহিদার বাবা ২০১০ সালের ১৯ ডিসেম্বর সন্দেহভাজন রবিউল কাশেম, আমিনুর রহমান ও রবিউল কাশেমের ছেলে নিক্সনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

১৭ জন সাক্ষীর মধ্যে ৮ জনের সাক্ষ্য নিয়ে ৩০২/৩৪ ধারার অপরাধে আদালত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এই রায় দেন। পলাতক নিক্সন ছাড়া বাকি দুই আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। নিক্সনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ইস্যুর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন নির্মল কান্তি ভদ্র। আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ ও মো. আনোয়ারুল করিম শাজাহান।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/টিআই

আরও পড়ুন...