করোনা ভাইরাস : দেশে ফিরেছেন সাড়ে ৩ লাখ প্রবাসী

বিডিপ্রেস এজেন্সি ডেস্ক : মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে চাকরি হারিয়ে চলতি বছরে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ বাংলাদেশি প্রবাসী দেশে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছেন। এছাড়া যারা বিদেশে যাওয়ার প্রক্রিয়ায় ছিলেন করোনাকালে লকডাউনের মধ্যে তারাও দেশ ছাড়তে পারেননি।এই অভিবাসন পরিস্থিতি আগের অবস্থায় ফিরে যেতে আরও অন্তত কয়েক বছর সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বাংলাদেশের জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর তথ্য মতে, গত জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত পাঁচ মাসে মাত্র ৮০০০ শ্রমিক বিদেশে পাড়ি জমিয়েছেন। যেখানে অন্যান্য বছরগুলোতে এই একই সময়ে লাখ লাখ মানুষ দেশ ছেড়ে যেতো।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারিতে সবচেয়ে বড় বিপর্যয় নেমে এসেছিল অভিবাসন খাতে। কিন্তু লকডাউন তুলে নিয়ে বিভিন্ন দেশে যাওয়ার উপর থেকে বিধিনিষেধ শিথিল করার পরও বিদেশে যাওয়া বাংলাদেশি অভিবাসীর সংখ্যা লাখ থেকে হাজারের ঘরে নেমে এসেছে।

আগের বছরগুলোতে যেখানে প্রতিবছর ৭ থেকে ৮ লাখ শ্রমিককে বিদেশে পাঠানো হতো। সেখানে চলতি বছর বিদেশে পাড়ি জমাতে পেরেছেন ১ লাখ ৯০ হাজারের মতো মানুষ। যাদের ৯৬ শতাংশ গেছে প্রথম তিন মাসে অর্থাৎ করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার আগে।

এর মধ্যে এপ্রিল-জুন পর্যন্ত লকডাউনের কারণে একজনকেও পাঠানো যায়নি। জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত বিদেশে গিয়েছে মাত্র ৮ হাজার অভিবাসী।

তবে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি আগের চাইতে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় বিভিন্ন দেশের অর্থনীতি ধীরে ধীরে হলেও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে শুরু করেছে।সূত্র- বিবিসি বাংলা।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/আই

আরও পড়ুন...