সফল উদ্যোক্তা : ওয়ারেন বাফেটের ১০টি পরামর্শ

ওয়ারেন বাফেট। ছবি: রয়টার্স। 

বিডিপ্রেস এজেন্সি ডেস্ক : সর্বকালের সেরা বিনিয়োগকারী কে? উত্তরে সব সময় যাঁর নামটি প্রথমে আসবে তিনি হলেন ওয়ারেন বাফেট। মার্কিন এই ধনকুবেরকে বলা যায় বিশ্বের সব বিনিয়োগকারীদের শিক্ষাগুরু।একবার ওয়ারেন বাফেটের কাছে জানতে চাওয়া হয়, অর্থোপার্জন এবং নিজের জন্য একটি নিরাপদ ভবিষ্যৎ তৈরি করার ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের জন্য তাঁর পরামর্শ কী, তখন তিনি বলেছিলে, প্রথমেই তাদের লক্ষ্য হওয়া উচিত তাঁদের বন্ধকি ঋণ পরিশোধ করা। তাঁর মতে, বন্ধকের অতিরিক্ত অর্থ দ্রুত পরিশোধের মানে হলো দুটি। এক. সুদের অর্থ বাঁচানো এবং দুই. বন্ধক থেকে মুক্ত যার মানে এই টাকা জোগাড় করতে প্রতি মাসে এত পরিশ্রম করতে হবে না। এটি এক কথায় একটি নিরাপদ বিনিয়োগ।

সঞ্চয়ের সুরক্ষিত জাল তৈরি করতে হবে—ওয়ারেন বাফেট প্রায়ই এটা বলেন। তাঁর মতে, যথাযথ বিনিয়োগে আসার আগে উদ্যোক্তাকে অবশ্যই কমপক্ষে ছয় মাস আগে থেকে জীবনযাত্রার ব্যয় (কেবলমাত্র বেঁচে থাকার বাজেটের জন্য যা লাগে) কমাতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে। এর অর্থ হলো যদি হঠাৎ করে আপনার কিছুটা নগদ অর্থের প্রয়োজন পড়ে, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিপদে পড়লে তা সামাল দিতে পারবেন। উদ্যোক্তাদের জন্য এমন নানা পরামর্শ প্রায়ই দিয়ে থাকেন বাফেট।

উদ্যোক্তাদের জন্য বাফেটের ১০ পরামর্শ 

১. পড়ুন এবং ভাবুন: বাফেট বলেন, আমি মনে করি প্রতিদিন অবশ্যই কিছু কিছু সময় বসে বসে ভাবা উচিত। যদিও মার্কিন ব্যবসায় এটি খুব অস্বাভাবিক। আমি প্রচুর পড়ি এবং ভাবি। ব্যবসায়ে বেশির ভাগ মানুষের চেয়ে কম প্ররোচিত সিদ্ধান্ত নিই আমি। আমি এটি করি কারণ আমি এই জাতীয় জীবন পছন্দ করি।

২. ব্যবসায়ের মৌলিক বিষয় সব সময় মনে রাখতে হবে: এ বিষয়ে ওয়ারেন বলেন, ‘মূল্য হলো যা তুমি পরিশোধ করছ। মান হলো যা তুমি পাচ্ছ।’

৩. ভাবুন ভাবুন এবং ভাবুন: বাফেটের খুব মূল্যবান একটি পরামর্শ হলো—একটি চমৎকার কোম্পানি ন্যায্যমূল্যে কেনার চেয়ে একটি ন্যায্য কোম্পানি চমৎকার দাম দিয়ে কেনা ভালো।

৪. স্মার্ট ও বাস্তববাদী হতে হবে: বাফেট বলেন, আমি এমন ব্যবসাগুলোর শেয়ার কেনার চেষ্টা করি যা এতই দুর্দান্ত যে একজন নির্বোধও তাদের চালাতে পারবে।

৫. কথার কথা বলবেন না যতক্ষণ না কাজটি করতে পারেন: বাফেট বলেন, স্রোতের টানে কার সব ভেসে গেল তা স্রোত সরে যাওয়ার পরেই বোঝা যায়। তাই কাজ করার আগে অযথা অহমিকা নয়।

৬. মনুষ্যত্ব মানুষ তৈরি করে: মানুষের আত্মিক সততা তার কাজেও প্রতিফলিত হয়। বাফেট বলেন, একজন খারাপ মানুষ হয়ে একটি ভালো চুক্তি আপনি করতে পারবেন না।

৭. সত্যিকারের ভালো মানুষ হন: খুব মূল্যবান একটি মন্তব্য আছে বাফেটের যা বিশ্বের সব সময়ের জন্যই প্রযোজ্য। বাফেট বলেন, সম্মান তৈরি করতে ২০ বছরও লেগে যায়, ভাঙতে ৫ মিনিটও লাগে না। এটা যদি আপনি ভাবেন তাহলে আপনি আলাদাভাবেই জীবন চালাবেন।

৮. কোনটি আসলেই মূল্যবান তা সম্পর্কে জানুন: বাফেট বলেন, স্বাস্থ্যের পরে আমি যে সম্পদটি সবচেয়ে বেশি মূল্যবান বলে মনে করি তা হলো আকর্ষণীয়, বিচিত্র এবং দীর্ঘস্থায়ী বন্ধু।

৯. কখন গোটাতে হবে জানুন: যদি নিজেকে কোনো গর্তে খুঁজে পান তবে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ কাজটি হলো খনন বন্ধ করা।

১০. এগিয়ে যাও: কোনো কাজ শুরুর আগে অবশ্যই নিজের ওপর বিশ্বাস রাখতে হবে। এমনটায় মনে করেন বাফেট। তিনি বলেন, আমি সব সময় জানতাম আমি বড়লোক হব। এ বিষয়ে কখনো আমার বিন্দুমাত্র সন্দেহ ছিল না।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/আইজেএস

আরও পড়ুন...