ইসরায়েলি নারী ফিলিস্তিনি এক শিশুকে নিজের ‘কিডনি’ উপহার দিলেন

ইদিত হেরেল সেগাল

বিডিপ্রেস এজেন্সি ডেস্ক : ইদিত হেরেল সেগাল নামে এক ইসরায়েলি নারী তার ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার অজ্ঞাত এক বালককে নিজের কিডনি দান করেছেন। তবে ইসরায়েলের সাথে বৈরিতার কারণে শিশুটির পরিবারের অনুরোধে তার পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে।

উত্তর ইসরায়েলের ইদিত হেরেল সেখানকার একটি কিন্ডারগার্ডেনে শিক্ষকতা করেন। তার এই উপহার চির সংঘাতপূর্ণ এলাকায় উদারতার একটি নজির হিসেবে উপস্থাপিত হবে বলে তিনি আশা করেন।

ইদিত হেরেল তার দাদার কাছ থেকে এমন কাজে উৎসাহিত হয়েছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার দাদা বেঁচে থাকতে আমাকে বলেছিলেন অর্থপূর্ণ একটি জীবন গড়তে, যেখানে মানুষের জীবন বাঁচানোর মতো মহৎ কাজ থাকবে।

তাই সেগাল দাতা এবং গ্রহিতার সঙ্গে সম্পর্কিত এমন একটি গোষ্ঠীর সাথে যোগাযোগ করে। একই সাথে কিডনি প্রয়োজন এরকম মানুষকে কিডনি প্রদান করার জন্য প্রায় নয় মাসের প্রতিস্থাপন প্রক্রিয়া শুরু করেন। গাজা উপত্যকার ৩ বছর বয়সি এক ফিলিস্তিনি শিশুকে এই কিডনি দেয়া হবে।

হিব্রু ভাষায় সেগেল সেই শিশুটিকে লেখা এক চিঠিতে বলেন, ‘তুমি আমাকে চিনবে না কিন্তু আমরা দ্রুতই খুব কাছাকাছি হব, কারণ, আমার কিডনি তোমার শরীরে প্রতিস্থাপন করা হবে।’ তিনি আরও বলেন, ১১ দিনের যুদ্ধের ঠিক পরে, ‘আমি ক্রোধ এবং হতাশাকে ঝেরে ফেলে কেবল একটি জিনিস দেখতে পেয়েছি, সেটা হলো শান্তি এবং ভালোবাসা। আমাদের মতো যদি আরও কিছু মানুষ থাকে তবে এই অঞ্চলে যুদ্ধ করার মতো কিছুই থাকবেনা।

বিডিপ্রেস এজেন্সি/টিএ

আরও পড়ুন...